Uncategorized

Looking For Alaska টিভি-সিরিজ রিভিউ

২০০৫ সালে প্রকাশিত জন গ্রিনের উপন্যাস “Looking For Alaska” থেকে ২০১৯ এ একদম রিসেন্টলি মুক্তিপ্রাপ্ত জোস সিয়ারট্রজ এর টিভি সিরিজ “Looking For Alaska” এডাপ্ট করা হয়েছে। যদিও ২০০৫ সালেই কথা হয়েছিল প্রকাশিত বই থেকে সিনেমা বানাবেন তিনি কিন্তু অবশেষে সিনেমা না হয়ে টিভি সিরিজ হিসেবে মুক্তি পেয়েছে হুলু’র ব্যানারে।
“Looking For Alaska” তে মাইলস ওরফে পাজ এর গল্প বলা হয়েছে যে মুলত অরল্যান্ডে বাস করা একজন টিনেজ বালক যার জীবনের একটা বড় ফ্যাসিনেশন হচ্ছে বড় বড় এবং জনপ্রিয় মানুষদের বলা শেষ কথা মনে রাখা। যেমন ফ্রন্সকোয়া রেবলে (আমি এই লেখকের নাম উচ্চারন এটাই সঠিক কিনা শিউর না) এর শেষ কথা ছিলো ” দ্যা গ্রেট পারহ্যাপস” আর এই বাক্য দ্বারা মাইলস অনেক বেশী মোটিভেটেড হয়ে পড়ে যে সে নিজের বাবার বোর্ডিং স্কুল ” কালভার ক্রিক” এ পড়তে রাজি হয়ে যায় যা অ্যালবামা তে অবস্থিত। সেখানে গিয়ে তাঁর সাথে পরিচয় হয় রুমমেট “কলোনেল” এর সাথে যে মুলত পাজকে স্কুলের নতুন পরিবেশ ও লাইফস্টাইলের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়। আর এই পরিচয় পর্বেই পরিচয় হয় কলোনেলের আরো দুই ফ্রেন্ড “টাকুমি” এবং থার্ড ওয়েভ ফেমিনিজমে বিশ্বাসী “অ্যালাস্কা ইয়াং”

যতদূর জানি, জন গ্রিন তাঁর নিজের জীবন অবলম্বনেই উপন্যাসটি লিখেছেন। বোর্ডিং স্কুলের জীবন ছিল তাঁর। অ্যালাস্কা রিবেলিয়াস, মিস্টিরিয়াস টাইপের একটি চরিত্র। আর সেই চরিত্র নিয়েই গল্পকে এগিয়ে নেয়া হয়েছে। যারা বই পড়েছেন তাঁদের বেশীরভাগের কাছেই হয়তো বইয়ের এন্ডিং মোটেও স্যাটিস্ফাইং মনে হয়নি, খাপছাড়া একটা ব্যাপার লেগেছে হয়তোবা অনেকের কাছেই সে ক্ষেত্রে টিভি সিরিজ হিসেবে “Looking For Alaska” বোনাস মার্ক পাবে। এখানে এন্ডিং মোটেও খাপছাড়া মনে হয়নি। “Looking for Alaska” নিয়ে বলতে গেলে বলবো হয়তো একজন টিনেজ প্লট বা গল্প ফ্যান হিসেবে আমার কাছে একটু বেশী ভালো লেগেছে তবে টিনেজ লাভার না হলেও ভালো লাগবে কারন এই সিরিজে যথেষ্ট ম্যাচিউর ইলিমেন্ট আছে। বিশেষ করে জীবনের মানে খোঁজা, ধর্মের দিক থেকে লাইফের রেফেরেন্স সহ বিভিন্ন বড় বড় লেখকদের কোট ও মাঝে মাঝে তাঁদের বিশ্লেষণ দেয়া হয়েছে যা প্রকৃত অর্থে গল্পকে একটা স্ট্রং বেজে নিয়ে গিয়েছে। যেমন, শুরুতেই বলেছি মাইলস “The Great Perhaps” এর পেছনে দৌড়াচ্ছে। আর যখন অ্যালাস্কার সাথে পরিচয় হবে তখন মিলবে আরেকটি কোট যা হচ্ছে” The only way out of the labyrinth of suffering is to forgive.” যা মুলত গারসিয়া মারকিজের উপন্যাস “The General in His Labyrinth” থেকে নেয়া হয়েছে। সিরিজটি আপনাকে ইমোশনাল করবে সাথে আপনার ইন্টেলেকচুয়াল মাইন্ডকে তাপ দিবে। দিবে স্যাটিসফিকশন। ব্যাপারটা খুব সুন্দর একটা কবিতার মতো। পড়বেন, শেষ হয়ে যাবে কিন্তু রেশ থেকে যাবে।







বইটি ২০০৫ সালে বের হওয়ায় সিরিজটি এখানকার মর্ডান টাইম হাইস্কুল ড্রামার মত হয়নি। যা এক ভাবে আসলে ভালো লেগেছে কারন এতে করে সেল ফোনের আধিক্য ছিল না, ছিল না ইন্টারনেটের স্টুপিড ব্যাপার, বা সোশ্যাল মিডিয়ার অবসেশন! যার কারনেই বেশ শক্ত ও পরিপক্ক একটি টিনেজ ড্রামা বেইজড সিরিজ পেয়েছি আমরা। ক্যারেক্টারগুলো অনেক সুন্দর করে গোছানো। আর সাহিত্য নিয়ে আলোচনার ব্যাপার তো তুলেই ধরলাম যা আমার মত অনেক সাহিত্য মনাদের ভালো লাগার কারন হিসেবে দাঁড়াবে। সিরিজটি দেখতে বসলে পাবেন অনেক কিছুই তবে আরো বোনাস হিসেবে পাবেন এই সিরিজের সাউন্ড ট্র্যাক গুলো। মারাত্মক লেভেলের সুন্দর বিজিএম সহ গান গুলো এত পারফেক্ট ভাবে প্লেসমেন্ট করা হয়েছে। বিশেষ করে আমি ব্যক্তিগত ভাবে TO BE ALONE by Fluerie এবং Take Me Out by Young Summer এর প্রেমে পড়ে গিয়েছি এবং রিপিট মুডে শুনে যাচ্ছি সিরিজ শেষ হবার পর থেকে।
তাই দেখেই নিতে পারেন ৮ এপিসোডের সিরিজটি।

TV Series: Looking For Alaska
IMDb rating- 8.4
Rotten Tomato- 100%
Soundtracks- https://spoti.fi/2Bz9xaI
Trailer-

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *